কম্পিউটারে ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ -Likhbobd

Symptoms of a computer virus

বর্তমান যুগকে বলা হয় প্রযুক্তির যুগ দিন যতই যাচ্ছে ততই প্রযুক্তির উন্নয়ন হচ্ছে। এই প্রযুক্তিকে উন্নয়ন করার লক্ষ্যে সৃষ্টি হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রিক ডিভাইস যার ব্যবহার করার মাধ্যমে পৃথিবী এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে যোগাযোগ করা এখন সময়ের ব্যাপার।
লিখব আজকের পোস্টে চেষ্টা করব আপনার পছন্দের কম্পিউটার বা ল্যাপটপ টি কোন ভাইরাস বা ম্যালওয়ার দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে কিনা তা আপনি কিভাবে বুঝবেন তবে চলুন শুরু করা যাক বাকি অংশ।

আজকের বিষয়বস্তু হলো :

  • কম্পিউটার ভাইরাস কি ?
  • কম্পিউটার ভাইরাস কিভাবে কাজ করে ?
  • কিভাবে একটি কম্পিউটারে ভাইরাস আক্রান্ত করে?
  • কম্পিউটারে ভাইরাস কিভাবে ছড়ায়?
  • কম্পিউটার ভাইরাসের লক্ষণ কি?

কম্পিউটার ভাইরাস কি ?

একটি কম্পিউটার ভাইরাস, অনেকটা ফ্লু ভাইরাসের মত । এটি একটি হোস্ট থেকে অন্য হচ্ছে ছড়িয়ে পড়ে এবং নিজেকে প্রতিলিপি করার ক্ষমতা রাখে। একইভাবে একটি ফ্লু ভাইরাস যেমন হোস্টেল ছাড়া পুনরুৎপাদন করতে পারে না। তেমনই একটি কম্পিউটার ভাইরাস কম্পিউটার ফাইল বানানোর মতো কোনো প্রোগ্রাম ছাড়া বিস্তার লাভ করতে পারে না।

কম্পিউটার ভাইরাস কিভাবে কাজ করে ?

আর প্রযুক্তির ভাষায়, কম্পিউটার ভাইরাস এমন ধরনের দূষিত কোড কম্পিউটার পরিচালনা পদ্ধতি পরিবর্তন করার জন্য লিখিত হয় । একটি কম্পিউটার থেকে অন্য একটি কম্পিউটারে ছড়িয়ে দেওয়ার মাধ্যমে কম্পিউটারের কোন বৈধ প্রোগ্রাম বা কোড অকার্যকর করে দেয়। এই ভাবেই কম্পিউটার ভাইরাস কম্পিউটার সিস্টেম সফটওয়্যার এর ক্ষতি করে ।

কিভাবে একটি কম্পিউটারে ভাইরাস আক্রমণ করে?

একটি ভাইরাস সফলভাবে কোন একটি প্রোগ্রাম ফাইল সংযুক্ত হয়ে গেলে ভাইরাসটি অবস্থায় থাকে যতক্ষণ না পর্যন্ত কম্পিউটার বা ওই ডিভাইস কি কোন কোড কার্যকর না হয়। যখনই কোন ডিভাইস ওই প্রোগ্রামটি চালাতে যাবে তখনই ভাইরাস কার্যকর হয়।
ফলে বলা যায় কোন ভাইরাস আপনার কম্পিউটারে কোন লক্ষণ বা উপসর্গ না দেখেও আপনার কম্পিউটার গোপন অবস্থায় থাকতে পারে এবং অন্যান্য নেটওয়ার্কে কম্পিউটার গুলোকেও সংক্রামিত করতে পারে। 
এবার আসুন একটি ভাইরাস আপনার কম্পিউটারের কি কি ক্ষতিসাধন করতে পারে ।যেমন ব্যক্তিগত পাসওয়ার্ড চুরি করা, কি স্ট্রোক লক করা, ফাইল গুলোকে নষ্ট করা, আপনার ই-মেইল এর মাধ্যমে বিভিন্ন স্পেলিং মেইল করা । এছাড়াও আরো ভাইরাস রয়েছে যেগুলো আপনার হার্ডডিস্কের স্থায়ী ক্ষতি করে।

কম্পিউটারে ভাইরাস কিভাবে ছড়ায়

বর্তমান বিশ্বে কম্পিউটার ভাইরাস ছড়ানোর অনেকগুলো বিদ্যমান রয়েছে যার মাধ্যমে আপনাকে বোকা করে আপনার পছন্দের কম্পিউটার বা ল্যাপটপের মধ্যে ভাইরাস ছড়িয়ে দিতে পারে। নিচে কিছু জনপ্রিয় পদ্ধতি দেয়া হল যেটির মাধ্যমে ভাইরাস আপনার কম্পিউটারে প্রবেশ করায়।

১. ইমেইল এবং টেক্সট মেসেজ অ্যাটাচমেন্ট করার মাধ্যমে। আপনার ই-মেইল বা টেক্সট মেসেজে কোন ফাইল দিয়ে আপনার কম্পিউটারে ভাইরাস ছড়িয়ে দিতে পারে।

২. ইন্টারনেটের বিভিন্ন ধরনের ফাইল ডাউনলোড এর মাধ্যমে। আপনারা অনেক সময় নিজের প্রয়োজনে ইন্টারনেটে বিভিন্ন ধরনের ফাইল ডাউনলোড করে থাকেন যার মধ্যে ভাইরাস বা মেলওয়ার থাকতে পারে এটি ইন্সটল করার সাথে সাথে আপনার কম্পিউটারে ভাইরাস আক্রমণ করে।

৩. এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের মজার মজার ছবি, শুভেচ্ছা কার্ড অডিও এবং ভিডিও বিভিন্ন ধরনের ফাইল এর মধ্যে ভাইরাস লুকিয়ে থাকতে পারে এই ছাড়ো ওয়েব সার্ফিং করার মাধ্যমে কম্পিউটারে ভাইরাস ছড়ায়।

কম্পিউটার ভাইরাসের লক্ষণ কি?

একটি কম্পিউটারে ভাইরাস আক্রান্ত হলে বিভিন্ন লক্ষণ প্রকাশ পায় নিচে লক্ষণ গুলো দেওয়া হল:

১. ঘন ঘন পপ আপ  উইন্ডোজ:পপ আপগুলি আপনাকে অস্বাভাবিক সাইট গুলো দেখার জন্য উৎসাহিত করতে পারে অথবা তারা বিভিন্ন এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার প্রোগ্রাম ডাউনলোড করার জন্য উৎসাহিত করে।

২. হোমপেজ পরিবর্তন: আপনার স্বাভাবিক হোমপেজ অন্য ওয়েবসাইটে পরিবর্তন হতে পারে বা এটি হারিয়ে যেতে পারে।

৩. মেইল পাঠানো: আপনার মেইল থেকে কেউ অন্য কোন জায়গায় মেইল পাঠাচ্ছে। যা আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না ।তবে বুঝতে হবে এটি ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে।

৪. ঘন ঘন ক্রাশ: ভাই আপনার কম্পিউটারের হার্ড ড্রাইভের ক্ষতি করার জন্য লুকিয়ে থাকে ফলে আটকে থাকে তাই আপনার কম বা ল্যাপটপ টি ঘন ঘন ক্রাশ করে ।

৫. কম্পিউটার স্লো হওয়া: আপনার কম্পিউটারের আকস্মিক ভাবে স্লো হওয়া কম্পিউটার ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ।

৬. পাসওয়ার্ড পরিবর্তন: আপনি কোন সাইটে বা কম্পিউটারে পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেছেন যা হঠাৎ করে একদিন দেখলেন পরিবর্তন হয়ে গিয়েছে বা আপনার নিয়ন্ত্রনে নেই তা হলে বুঝতে হবে কম্পিউটারটি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

আজকে এই পর্যন্তই আশা করি পোস্টটি সবার ভালো লেগেছে এর পরবর্তী পোস্টে চেষ্টা করব কম্পিউটার ভাইরাস থেকে কিভাবে মুক্তি পাওয়া যায় তার সমাধান নিয়ে। এই পর্যন্ত ভালো থাকবেন এবং লিখব বিডি সাথেই থাকবেন ।
ধন্যবাদ

আরো পড়ুন:  এন্ড্রয়েড ফোনের সেরা ৫টি অ্যাপ্লিকেশন

Leave a Comment