এফিলিয়েট মার্কেটিং কি?Affiliate Marketing করে আয় করুন মাসে হাজার হাজার টাকা !!

 আসসালামু আলাইকুম

লিখব বিডি আরও একটি নতুন পোস্টে আপনাকে স্বাগতম। আজকের পোস্টের বিষয় হলো এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে। সুতরাং এই পোস্টে আমি আপনাদের কাছে শেয়ার করব অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর কিছু প্রশ্ন তাহলে চলুন শুরু করা যাক:

বর্তমানে অনেক মানুষই ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকে। ইন্টারনেট ব্যবহারের মাধ্যমে মানুষ অনেক কিছু সাথে পরিচিত হয়। যা তার আগে জানা ছিল না। এমনই একটি বিষয় হলো অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। যারা ইন্টারনেটে ব্রাউজ করেন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে কোথাও না কোথাও খুঁজে পেয়েছেন।

অনলাইন আয় করার সেরা ৭ টি উপায় !!

আজকের পোস্টের বিষয়বস্তু:

  1. এফিলিয়েট অর্থ কি?
  2. এফিলিয়েট মার্কেটিং এ যারা অনলাইনে মার্কেটিং করে থাকেন তাদের কী বলা হয় ?
  3. এফিলিয়েট মার্কেটিং কেন করবো?
  4. এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সুবিধা?
  5. এফিলিয়েট মার্কেটিং সাইট?
  6. এফিলিয়েট মার্কেটিং বাংলাদেশ?

এফিলিয়েট অর্থ কি?

Affailte Meaning In Bengali অ্যাফিলিয়েট অর্থ হল অনুমোদিত বা কোন কিছুর অনুমোদন নেওয়া যার মাধ্যমে আপনি এটি ব্যবহার করতে পারবেন। আর মার্কেটিং হল বিপণন ।যার মাধ্যমে আপনি যেকোনো জিনিস বিক্রি করতে পারবেন। মার্কেটিং করার মাধ্যমে আপনি আপনার কাঙ্খিত সেবা বা পণ্যটি সহজেই মানুষের কাছে পৌছে দিতে পারবেন এবং তা মানুষকে ক্রয় করার প্রতি আকৃষ্ট করতে পারবেন।

সুতরাং অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল এমন একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে আপনি আপনার কোম্পানি বা ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান থেকে কোন ফিজিক্যাল পণ্য বা সেবা না নিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে তাদের অনুমোদন সাপেক্ষে একটি নির্দিষ্ট কমিশনের মাধ্যমে বিক্রি করা শুরু করতে পারেন।

অর্থাৎ কোন প্রতিষ্ঠান কোন পণ্যের লিংক আপনাকে প্রদান করবে তা যদি আপনি তাদের বিক্রি করে দিতে পারেন তাহলেই আপনাকে একটি নির্দিষ্ট কমিশন দেওয়া হবে ।আর এটিকে বলা হয় এফিলিয়েট মার্কেটিং।

এফিলিয়েট মার্কেটিং এ যারা অনলাইনে মার্কেটিং করে থাকেন তাদের কী বলা হয় ? 

যারা কোন পণ্য বা সেবার মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার কাজ করে তাদেরকে বলা হয় মার্কেটার। আর যারা অনলাইনে কোন পণ্য অনুমোদন দেওয়ার মাধ্যমে কোন কোম্পানি তার পণ্য বা সেবা মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার কাজ করে তারা হল এফিলিয়েট মার্কেটের। ফলে একজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার তার নির্দিষ্ট নিশ অনুযায়ী কাজ করে এবং তার থেকে কমিশন অর্জন করে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং কেন করবো?

অনেকের মনে হয়তো এই প্রশ্ন থাকতে পারে আমরা কেন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করব। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার কারণ হলো কোন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস আপনি ফিজিক্যাল ভাবে যত মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবেন ।এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে তার চেয়ে প্রায় ১০০ গুন মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব।

আরো একটি কারণ হলো আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে বাড়িতে বসে থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। এর জন্য বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। লক্ষ লক্ষ প্রডাক্ট আপনি এক ক্লিকেই হাজার হাজার প্রোডাক্ট মার্কেটিং করতে পারবেন যার মাধ্যমে আপনি মাসে অনায়াসে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারেন।

এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সুবিধা

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর সুবিধা গুলো কি কি তা যদি আলোচনা করতে হয় তাহলে এর আলোচনা অনেক ব্যাপক। কারণ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে যা নিচে দেওয়া হল:

১. অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য আপনার কোন টাকার দরকার হয় না। শুধু একটি কম্পিউটার এবং নেট কানেকশন আর ইংরেজিতে দক্ষ হওয়ার প্রয়োজন পড়ে।

২. এফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য আপনার কোন নির্দিষ্ট প্রোডাক্ট এর প্রয়োজন হয় না । আপনার কোন উৎপাদনের খরচ, কর্মীদের বেতন, বা কারখানা ভাড়া দেওয়ার মতো কোন কাজই করতে হয় না। আপনি শুধু প্রডাক্ট পছন্দ করে মার্কেটিং করা শুরু করবেন।

৩. যে প্রোডাক্ট বিক্রি করবেন সেই প্রোডাক্টের সেলস পরবর্তী সার্ভিসের কোন চিন্তার প্রয়োজন পড়ে না ।কারণ প্রোডাক্টটির উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান তার পরবর্তীতে সেবা দিয়ে থাকে।

৪. এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে আপনি নিজেই নিজের বশে যাবেন এবং যেকোনো সময়ে আপনি আপনার স্বাধীনভাবে যে কোন দেশ বা স্থান থেকে সহজে কাজ করতে পারেন। যার মাধ্যমে আপনি আপনার ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারেন।

উপরে উল্লেখিত আরও সুবিধা ছাড়াও অনেক ধরনের সুবিধা রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি অ্যাপেলেট মার্কেটিং করার মাধ্যমে সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

এফিলিয়েট মার্কেটিং সাইট

এফিলিয়েট মার্কেটিং কি এর বিষয়বস্তু গুলো উপরে আলোচনা করা হয়েছে। এইবার এখানে আলোচনার বিষয় হল আপনি এফিলিয়েট মার্কেটিং এর কোন কোন সাইট ব্যবহার করবেন আর করবেন না। বর্তমান ইন্টারনেটের কল্যানে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে তৈরি হয়েছে হাজার হাজার অ্যাফিলিয়েট সাইট। 

যার মাধ্যমে আপনার পছন্দের মত আপনার নির্দিষ্ট পণ্য আপনি আপনার গ্রাহকের কাছে পৌছে দিতে পারেন। লিখব বিডির আরো একটি পোস্টে আলোচনা করা হয়েছে কীভাবে বা কোন কোন অ্যাপেলেট সাইটটি আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো হবে নিচের পোস্টের লিংক দেওয়া হল

সেরা ৬টি অ্যাফিলিয়েট নেটওয়ার্ক ওয়েবসাইট।

ফেসবুকে এফিলিয়েট মার্কেটিং

ফেসবুক মার্কেটিং হল এমন একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে আপনি ফেসবুক কে ব্যবহার করে আপনার কাঙ্খিত প্রোডাক্টটি আপনি আপনার কাংখিত গ্রাহকের কাছে পৌছাতে পারেন। ফেসবুক মার্কেটিং হল মার্কেটিং এর একটি প্লাটফর্ম যেখানে অনেক ভিজিটর অবস্থান করে এবং ওই ভিজিটরকে কোন পণ্য বা আকর্ষণ করার জন্য আপনি বিভিন্ন রকম বিজ্ঞাপন বা লেখালেখির মাধ্যমে আপনার পণ্যটি তাদের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন। অন্য একটি পোস্টে ফেসবুক মার্কেটিং কি ?ফেসবুক মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে সেই সম্পর্কে ধারণা দিতে চেষ্টা করব।


                                                        এফিলিয়েট মার্কেটিং বাংলাদেশ?

এফিলিয়েট মার্কেটিং বাংলাদেশ খুবই জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। আমাদের দেশে বর্তমানে অনেক অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার রয়েছে যারা হাজার হাজার ডলার আয় করছে বাড়িতে বসে থেকে। শুধু তাই নয় বাংলাদেশ অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটারদের কাজ করার সুযোগ দিচ্ছে তাদের সাইটে যেমন bdshop.com. Daraz.com foodpanda.com এছাড়াও আরো শতশত মার্কেট  রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি বাংলাদেশে বসে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন বাংলাদেশের মানুষের কাছে।

আজকের আলোচনা বিষয় হলো কিছু প্রশ্নের উত্তর ছিল যার মাধ্যমে আপনি অ্যাপেলেট মার্কেটিং সম্পর্কে কিছুটা ধারনা পেতে পারেন যদি পোস্টটি ভাল লাগে বন্ধুদের কাছে শেয়ার করবেন এবং নতুন নতুন পোস্ট পাওয়ার জন্য নিচে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন।

ধন্যবাদ

Leave a Comment