এসইও কি? কীভাবে এসইও করে আয় করবেন মাসে ৫০০ ডলার !!

What is SEO? How to earn 500 dollar month !!

আসসালামু আলাইকুম

লিখব বিডি নতুন একটি পোস্টে আপনাকে স্বাগতম । আজকের পোষ্টে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করছি তা হলো এসইও কি । এই পোস্টে আপনি জানতে পারবেন এসইও কি এর গুরুত্ব এবং কিভাবে করে মানুষ অনলাইনে অর্থ উপার্জন করেছে তার বিস্তারিত বর্ণনা এই পোস্টে থাকবে আশা করি পোস্টটি আপনার ভালো লাগবে।

আজকের পোস্টের বিষয়বস্তু:

  • এসইও কি?
  • Seo এর গুরুত্ব ।
  • অন পেজ এসইও কি?
  • অফ পেজ এসইও কি?
  • সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কি।
  • এস ই ও শিখতে কত দিন লাগে ।
  • Seo এর কাজ শেখার উপায় ।
  • মোবাইল দিয়ে এসইও।
  • সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং কি?
  • Yoast seo কি?
  • Seo করে কত টাকা আয় করা যায়?

আরও পড়ুন:লিখব বিডি থেকে আয় করুন প্রতিদিন ২০০ থেকে ৪০০ টাকা পর্যন্ত!! (বিকাশে পেমেন্ট)

 এসইও কি

 এসইও এর পূর্ণরূপ হল সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন হল এমন একটি পদ্ধতি যেটির মাধ্যমে যে কোন সার্চ ইঞ্জিন গুগল, ইয়াহু ইত্যাদি সার্চ ইঞ্জিনে আপনার পেজকে প্রথমদিকে নিয়ে আসে। বর্তমানে এসইও গুগল সার্চ ইঞ্জিনকে টার্গেট করে থাকে।

উদাহরণস্বরূপ বলতে গেলে ধরুন আপনার একটি অনলাইনে মোটরসাইকেল এর একটি ওয়েবসাইট রয়েছে। এখন আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইট টি এসইও করা থাকে তাহলে গুগলে কোন মানুষ মোটরসাইকেল দিয়ে সার্চ দিলে যে রেজাল্ট আসে তা সব সময় উপরে দেখায়।

একটি জিনিস কি ভেবেছেন যে শত শত মোটরসাইকেল অনলাইন স্টোর থেকে গুগোল কেন আপনার ওয়েবসাইটটিকে  সবার প্রথমে নিয়ে এসেছে । সেটি হল এসইও । যদি আপনার ওয়েবসাইটটি কে সঠিকভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজ করতে পারেন তাহলে আপনার ওয়েবসাইটটি ভিজিটর যেমন বাড়বে তেমনি আপনার বিক্রি বেশি হবে।

এসইও এর মাধ্যমে গুগলকে বোঝানো হয় যে কিওয়ার্ড গুলো দিয়ে মানুষ সার্চ করে সেগুলো আপনার ওয়েবসাইটে বিদ্যমান থাকে। তাহলে আপনার ওয়েবসাইটটি উপরে থাকবে আর এই কৌশলকে এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বলে।

আরও পড়ুন:ফ্রিল্যান্সিং বলতে কি বুঝায়? নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং-২০২২

Seo এর গুরুত্ব

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর গুরুত্ব বা এর প্রয়োজনীয়তা কতটুকু তা বলে শেষ করা যাবে না কারণ আপনার যেকোন ব্যবসা বা প্রতিষ্ঠান প্রচার এবং প্রসার করতে অবশ্যই সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের প্রয়োজন। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটটি জনপ্রিয় করে তুলতে পারে।
বর্তমান যুগ হলুদ তথ্য ও প্রযুক্তির যুগ বর্তমানে আপনি ইন্টারনেটে প্রচার করতে না পারেন তাহলে আপনি বিশ্বের সামনে নিজেকে উপস্থাপন করতে পারবে না। যার পরিপ্রেক্ষিতে আপনি ডিজিটাল যুগের বিশ্বের আড়ালে থেকে গেলেন ফলে আপনার যেকোনো কর্মকাণ্ডেই এক জায়গায় বিদ্যমান থাকলো এটি সারা পৃথিবীতে বিস্মৃত হল না।

অন পেজ এসইও কি

অনপেজ এসইও হচ্ছে এমন একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগকে সাজানোর যাবতীয় কার্যক্রম বা ওয়েবসাইটটিকে ভালোভাবে তৈরি এবং দেখাতে যা কিছুর প্রয়োজন হয় সেটি হল অনপেজ এসইও। সহজভাবে বলতে গেলে এটি হলো আপনার ওয়েবসাইটের ইউজারদের প্রথম পেজ যেটির মাধ্যমে আপনারা ইউজারদের আপনি বিভিন্ন ধরনের তথ্য প্রদান করে থাকেন। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর অনপেজ এসইও খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এস ই ও শিখতে কত দিন লাগে

এসইও বলতে মূলত দুই ধরনের পদ্ধতি ব্যবহার করা হয় যেটির মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটটি এসইও সম্পাদন করে একটি হল অফ পেইজ এসইও অন্যটি হলো অন পেইজ এসইও এই পদ্ধতিতে সাধারণত এসইও করা হয়ে থাকে। অনেকেরই প্রশ্ন থাকে এসইও শিখতে কতদিন সময় লাগে এটি মূলত আপনার নির্ভর করে ।যে নিয়মিত চর্চা এবং বিভিন্ন ধরনের কী ওয়ার্ড গুলোকে র‌্যাংক করার মাধ্যমেই আপনার এসইও কাজ শিখতে পারেন।

Seo এর কাজ শেখার উপায়

আপনি এসইও কাজ অনেক ভাবে শিখতে পারেন প্রথমত আপনার আশেপাশে কেউ এসইও সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকলেই তার কাছ থেকেও সহজে শিখতে পারেন। বর্তমানে কিছু ট্রেনিং সেন্টার তৈরি হয়েছে যেখানে আপনি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কে জানতে এবং এটি শিখতে পারেন। বিশেষ সতর্কতাঃ এই অনেক ট্রেনিং সেন্টার শুধুই সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের সংজ্ঞা বা এর গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা করে কিন্তু সার্চ ইঞ্জিনে তা কিভাবে করতে হয় তা শিখায় না তাই এদিক থেকে আপনাকে একটু সতর্ক থাকতে হবে।

এসইও শেখার আরো একটি পদ্ধতি হলো অনলাইন কোর্স বা ইউটিউবে ভিডিও দেখে দেখে আপনি এই কাজ শিখতে পারেন। ইউটিউবে অনেক ভালো ভালো ভিডিও রয়েছে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শেখার জন্য তাই দেরি না করে ফ্রিতে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শিখতে ইউটিউব ব্যবহার করতে পারেন। আরেকটি পদ্ধতি হলো সেটি হলো আপনি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কে বিভিন্ন ধরনের বই রয়েছে  যেটির মাধ্যমে আপনি এই কাজ শিখতে পারেন।

মোবাইল দিয়ে এসইও

মোবাইল এর মাধ্যমে এসইও করা খুব একটা সহজ নয় তবুও যদি আপনি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কে ভালো জ্ঞান রাখেন তাহলে মোবাইলের মাধ্যমেই তা করা সম্ভব। তবে সবচেয়ে ভালো হয় যদি আপনার ল্যাপটপ বা কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকেন। কারণ কম্পিউটার বা মোবাইল এর মাধ্যমে আপনি আপনার প্রতিযোগী ওয়েবসাইটগুলোর যেগুলোর মাধ্যমে সার্চ ইঞ্জিন তা সহজেই আপনি বের করতে পারেন এবং আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী সেগুলো রিসার্চ করে বের করতে পারবেন।

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং কি

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং হচ্ছে এমন ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং করার একটি কৌশল যেখানে আপনার প্রতিযোগিতামূলক অনলাইন মার্কেটপ্লেসে অনলাইন বিজনেস পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো উপায় হলো এই সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং যেটি আপনার পণ্য এবং সেবা প্রচার করতে সবচেয়ে কার্যকর পদ্ধতি।
সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং সাধারণত দুই টার্ম আছে যেগুলো মধ্যে সমস্যা তৈরি করে একটি হলো সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং পেইড অন্যটি হলো সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও। এই পদ্ধতিতে মূলত আপনি ফ্রিতে না পেয়ে আপনার একটি বিনিয়োগের প্রয়োজন পড়বে যেটির মাধ্যমে আপনার কিওয়ার্ডটি সার্চ ইঞ্জিনগুলো প্রথমে দেখাবে। 

আপনার প্রোডাক্ট অনুযায়ী কস্ট পার ক্লিক অনুযায়ী আপনার গুগলকে অর্থ প্রদান করতে হবে। আপনার প্রোডাক্টটি কতটা দামি তার ওপর সিপিসি রেট ধরা হয়।

উদাহরণস্বরূপ আপনি যদি মোবাইল লিখে সার্চ দেন তাহলে দেখবেন অনেকগুলো মার্কেটপ্লেস ই-কমার্স স্টোরগুলোর তাদের সেবা ছোট করে অ্যাড লিখে আপনার সার্চ রেজাল্টের প্রথমদিকে আসে। এটি যেভাবে আসে সেটি হল সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং।

Yoast seo কি

Yoast হল একটি ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগইন যেটির মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের পেজ এর গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যেমন টাইটেল, ইমেজ, মেটা ট্যাগ, কনটেন্ট এইসব নিয়ে কাজ করার জন্য আপনাকে সাহায্য করবে।
Yoast এসইও করার মাধ্যমে আপনি প্রায় অনেকাংশেই এসইও কাজ সম্পাদন করতে পারেন। ফলে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ একটি প্লাগিন যেটির মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটের কনটেন্টগুলো গুগল সার্চ আনা আরো সহজ করে তুলে। এর একটি প্রিমিয়াম ভার্সন রয়েছে যেটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আরো কিছু ফিচার পাবেন যেটি আপনার এসইও আরো সহজ করে তুলবে।

Seo করে কত টাকা আয় করা যায়

বর্তমানে এসইও চাহিদা আকাশচুম্বী। কারণ এটির মাধ্যমে আপনি যেমন আপনার ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারেন আবার আপনার কোনো পণ্য বা সেবা থাকলে তা অনলাইনে এসইও করার মাধ্যমে সবার কাছে পৌঁছে দিতে পারেন।

এছাড়াও বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে বিভিন্ন ধরনের এস ইউ সম্পর্কিত কাজ রয়েছে যেটির মাধ্যমে আপনি মাসে ৩০০ থেকে ৫০০ ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারেন। তাহলে দেরি না করে আপনিও এই দক্ষতা উন্নয়ন করার মাধ্যমে অনলাইনে আয় করা শুরু করতে পারেন।

আজকের পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আপনার কাছে যদি পোস্টটির মাধ্যমে উপকৃত হন তাহলে আপনার বন্ধুদের কাছে শেয়ার করুন যেন তারাও এ বিষয়ে সম্পর্কে জানে।


Leave a Comment