কম্পিউটার হ্যাং হলে করণীয়

 

কম্পিউটার হ্যাং হলে করণীয়

লিখব বিডির নতুন একটি পোস্টে আপনাকে স্বাগতম। আশা করি আল্লাহর রহমতে সবাই ভাল আছেন। লিখব বিডি নতুন একটি পোস্টে বিষয় হলো কম্পিউটার হ্যাং হলে আপনি কি কি করবেন। অনেকেই কম্পিউটার হ্যাং সম্পর্কে সম্পর্কে জানেনা। তাই বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে।

আজকের পোস্টের বিষয়বস্তু

কম্পিউটার হ্যাং

আমরা যারা পিসি বা ল্যাপটপ ব্যাবহার করে থাকি। তারা যখন নতুন নিয়ে আসি তখন পিসির পারফরমেন্স খুবই ভালো থাকে। কিন্তু দিন যতই যায় ততই কম্পিউটার হ্যাঁং হওয়া শুরু করে তখন এই কাজের জন্য কম্পিউটারটি কার্যক্ষমতা হারাতে থাকে এবং দিনে দিনে কম্পিউটারটি ধীরগতি সম্পন্ন হয়ে যায় ।

কম্পিউটার হ্যাং হয়ে যাচ্ছে

আমরা যখন কোন সফটওয়্যার বা অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে চাই তখনই কম্পিউটার টি আগের মত কাজ না করে কিছুটা সময় নেই। ফলে কাজের সময়টাও বৃদ্ধি হয়। এছাড়াও আপনার বিভিন্ন ব্রাউজিং করার সময় আপনার কম্পিউটারটি কিছুটা ধীরগতি লক্ষ্য করা যায় এইসব লক্ষণ দেখে আপনি বুঝবেন যে আপনার কম্পিউটারটি হ্যাং হওয়া শুরু করছে।

কম্পিউটার হ্যাং হওয়ার কারন

আপনার কম্পিউটারটি হ্যাং হওয়ার জন্য বিভিন্ন কারণ রয়েছে নিচের কারণগুলো উল্লেখ করা হলো।
  • কম্পিউটার যে ফাইলগুলো আপনার প্রয়োজনীয় তার থেকে বেশি ব্যবহার করা।
  • ইন্টারনেট ব্রাউজ করার পর ব্রাউজার থেকে হিস্টরি বা কুকিজ ডিলিট না করা
  • কম্পিউটারের কনফিগার থেকে বেশি লোড নেয় এরকম সফটওয়্যার ব্যবহার করা
  • বিভিন্ন ধরনের পাইরেসি যুক্ত সফটওয়্যার ব্যবহার করা
  • কম্পিউটারে বিভিন্ন ভাইরাস আক্রান্ত হওয়া
  • ইন্টারনেট থেকে বিভিন্ন মেলায় প্রবেশ করা

কম্পিউটার ভাইরাস কি এবং এটি কিভাবে প্রতিরোধ করা যায় এই সম্পর্কে জানতে এই প্রশ্ন করতে পারেন।

কম্পিউটার হ্যাং হলে করণীয়

উপরোক্ত পদ্ধতি ছাড়াও আরো অনেক উপায় কম্পিউটার হ্যাং হয়ে থাকে। তাই আপনি আপনার কম্পিউটার কে হ্যাক হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য প্রথমেই আপনার কম্পিউটার টির নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। কারণ অধিকাংশ সময়ই কম্পিউটার স্লো হয় বিভিন্ন ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার কারণে। এছাড়াও আপনার যে হার্ডডিস্ক রয়েছে সে হার্ডডিস্কের তুলনায়ও বেশি ডাটা ব্যবহার করলে কম্পিউটার হ্যাং হয়ে যায়। 
তাই হার্ডডিস্কটি পূর্ণ হয়ে গেলে আপনার যে ফাইলগুলো দরকার সেটি রেখে বাকি গুলো ডিলিট করে দিন। এছাড়াও ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময় বিভিন্ন সাইট থেকে বিভিন্ন রকম ফাইল ডাউনলোড না করে ভালো ফাইলগুলো ডাউনলোড করুন এতে আপনার কম্পিউটারে ম্যালওয়ার ঢুকবে না এবং কম্পিউটার স্লো হবে না।
উপরুক্ত আলোচনা থেকে বুঝা যায় আপনার কম্পিউটারটি যদি কোন অ্যাপস সফটওয়্যার হ্যাং হয়ে থাকে । তাহলে আপনাকে প্রথমেই আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপের প্রোগ্রাম ফাইল থেকে টাস্ক ম্যানেজার অপশনে যান। সেখান থেকেই আপনি যে অ্যাপ্লিকেশনটি হ্যাং হয়ে যায় সেটি স্টপ করে দিন। এতে আপনার ওই ফাইল বা সফটওয়্যার টি পুনরায় চালু হবে।
পোস্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন এবং বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন।
ধন্যবাদ

Leave a Comment