কিডনি ভালো রাখার উপায়

 

কিডনি ভালো রাখার উপায়

শরীরে যতগুলো অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ গুলো রয়েছে তার মধ্যে কিডনি অন্যতম। কিডনি ভালো রাখার উপায় গুলো নিয়ে আজকের পোস্ট। আমাদের শরীরে দুটি কিডনি থাকে যেটির মাধ্যমে আমাদের শরীরে দূষিত পদার্থ গুলোকে বের করে দিতে সাহায্য করে।

কিডনি বিভিন্ন রোগ দেখা যায় যেটি একটি নীরব ঘাতক হিসেবে কাজ করে। কিডনি কোন রোগে আক্রান্ত হলে সহজে তা বুঝা যায় না। কিন্তু শরীরে তার প্রভাব থাকবে সেটি মানুষকে মৃত্যু পর্যন্ত নিয়ে যায়। তাই আজকের পোস্টে আলোচনা করবো আমাদের এই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গটিকে কিভাবে ভালো রাখা যায়।

কম্পিউটার আসক্তি থেকে মুক্তির উপায় – Likhbobd

কিডনি ভালো রাখতে সবারই পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি খেতে হবে। পানি হল আমাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ সঙ্গী। যার মাধ্যমে আমরা গ্রহণ করে বেঁচে থাকে। যেহেতু কিডনি আমাদের গ্রহণ করা খাদ্য থেকে দূষিত পদার্থ গুলো বের করে। এর কাজ করতে পানি প্রয়োজন তাই কিডনি ভালো রাখতে অবশ্যই নিয়মিত পানি পান করবেন।

পানি পান করার জন্য অবশ্যই আপনাকে নিরাপদ পানি পান করতে হবে। যার মাধ্যমে আপনার বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতে পারেন যেমন জ্বর, ডায়রিয়া, বমি বমি ভাব ইত্যাদি দেখা যায়। অনিরাপদ পানি ব্যবহার করার ফলে তাই নি অবশ্যই নিরাপদ পানি পান করুন।

ওজন মানব জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ উঠেছে। বর্তমানে আমাদের বিভিন্ন ধরনের খাদ্য গ্রহণ করার ফলে আমাদের শরীরের ওজন বৃদ্ধি পায়। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিডনি ভালো রাখার জন্য অবশ্যই আপনাকে ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।

সুষম খাদ্য অভ্যাস গড়ে তুলুন। সুষম খাবার গ্রহণ করার মাধ্যমে আপনি যেমন কিডনির রোগ থেকে মুক্তি পাবেন তেমনি আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি পাবে। কিডনি ভালো রাখার উপায় গুলোর মধ্যে খাদ্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

নিয়মিত ব্যায়াম করুন। ব্যায়াম করার মাধ্যমে আমাদের যেমন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় তেমনি আমাদের শরীরের পেশী গুলো আরো শক্তিশালী হয়ে ওঠে। এতে আপনার কিডনি ভালো রাখার পাশাপাশি আপনার শরীরের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ থেকে সহজে রক্ষা পেতে পারেন।

নেশাদার দ্রব্য পরিহার করুন। নেশাদ্রব্য আমাদের জীবনকে ধ্বংস করে দেয়। নেশাদার দ্রব্য খাওয়ার ফলে যেমন বিভিন্ন রোগের সৃষ্টি হয় তেমনি কিডনির উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলে। তাই কিডনি ভালো রাখার জন্য অবশ্যই নেশাদার দ্রব্য পরিহার করুন। এছাড়াও নেশাদ্রব্য গ্রহণ করার মাধ্যমে আপনার ক্যান্সারের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমান কারণ আপনি যদি না ঘুমান তাহলে আপনার শরীরের হজম করার যে প্রক্রিয়াটি আছে তা হয় না। ফলে আপনার বিভিন্ন রকমের রোগ সৃষ্টি হয়। এতে কিডনির বিভিন্ন ধরনের রোগ দেখা যায়।

পোস্টটি ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন এবং আপনাদের বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন। এরকম নতুন নতুন পোস্ট পেতে লিখব বিডি এর সাথে থাকবেন।

Leave a Comment